আন্দোলনকারীদের গ্রেপ্তার না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

বিরোধী রাজনৈতিক দলের আন্দোলন এবং নৈরাজ্যের কারণে মানুষের কষ্ট আরও বাড়তে পারে আশঙ্কা প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের অপজিশন (বিরোধী রাজনৈতিক দল) একটা সুযোগ পাচ্ছে।

তারা আন্দোলন করছে, করুক। আজকে আমি নির্দেশ দিয়েছি, তারা আন্দোলন করছে, করুক, তাদের কাউকে যেন গ্রেপ্তার করা না হয়। তারা আন্দোলন করতে চায় করুক অসুবিধা নেই। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও করবে, আমি আসতে দেব।

রবিবার (১৪ আগস্ট) গণভবনে আওয়ামী লীগের ৮ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত ৮ জন সাংগঠনিক সম্পাদকের সঙ্গে বৈঠকের আগে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, চলমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটে দেশের মানুষের সমস‌্যা উপলব্ধি করে তাদের কষ্ট লাঘবের জন‌্য প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছি। তিনি বলেন, মানুষের কষ্ট আমরা উপলব্ধি করতে পারি। মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য কি করা যায় সেজন্য প্রতিনিয়ত আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। মানুষের কষ্ট যে আমরা বুঝিনা তা নয়।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী জানান, বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমলে বাংলাদেশে তা সমন্বয় করবে সরকার। বিদ্যুৎ সমস্যার জন্য কিছুদিন কষ্ট করতে হবে, তবে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের উপাদানগুলো দেশে চলে আসলে বিদ্যুৎ সমস্যা কেটে যাবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

নিষেধাজ্ঞায় আমেরিকা ও রাশিয়ার লাভ হয়েছে বলে জানান সরকার প্রধান। তিনি বলেন, রুবলের দামও বাড়ছে, ডলারের দামও বাড়ছে। সারা বিশ্বব্যাপী রুবল ও ডলার স্টক হয়ে গেছে। মরতেছে সব দেশের সাধারণ মানুষ। বিশেষ করে নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের জন্য চরম দুর্ভোগ। সব দেশের একই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা, পাল্টা নিষেধাজ্ঞা ও যুদ্ধে মানুষের জীবনে সর্বনাশটা ডেকে এনেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.