লাক্স সুন্দরী থেকে সুপ্রিম কোর্টের ব্যারিস্টার

২০০৭ সালে লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে সেরা দশে স্থান করে নিয়েছিলেন উপমা বিশ্বাস। অর্জন করেন ৬ষ্ঠ স্থান। কিন্তু মিডিয়া জগতের রঙিন হাতছানি উপেক্ষা করে বার এট ল (ব্যারিস্টারি) পড়তে লন্ডনে যান।

কোন সিনেমা বা গল্পে নয়, এখন বাস্তব জীবনে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে বিভিন্ন মামলায় আইনি লড়াইয়ে অংশ নিচ্ছেন ২৯ বছরের তরুণী ব্যারিস্টার উপমা বিশ্বাস। পাশাপাশি বিজয় টিভিতে নিয়মিত সংবাদ পাঠ করেন
তিনি। বিয়ে করেছেন তরুণ ব্যারিস্টার ইলিন ইমন সাহাকে।

উপমার গ্রামের বাড়ি বরিশাল। জন্ম ১৯৮৮ সালে রাজধানীর মিরপুর।শৈশব-কৈশোর মিরপুরেই কেটেছে। মোহাম্মদপুরের গ্রিন হেরাল্ড ইন্টারন্যাশনাল স্কুলে ও-লেভেল পড়া শেষ করি। পরে ব্রিটিশ কাউন্সিলের অধীনে এ লেভেল পড়ার সময় সিদ্ধান্ত নেই ব্যারিস্টারি পড়ার। এ লেভেল শেষ করে ইউনিভার্সিটি অব লন্ডনের আন্ডারে ২০০৮ সালে এলএলবিতে অনার্স সম্পন্ন করেন।

লাক্স সুন্দরী থেকে সুপ্রিম কোর্টের ব্যারিস্টার
২০০৭ সালে এলএলবি অনার্স দ্বিতীয় বর্ষে পড়ার সময় লাক্স-চ্যানেল আই সুপার স্টার প্রতিযোগিতার অংশ নেন তিনি। তার মায়ের আগ্রহে লাক্স-চ্যানেল সুপার স্টার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন তিনি। কিন্তু পরে আর মডেলিং বা নাটক-সিনেমার লাইনে আসেননি।

উপমা বলেন, চলচ্চিত্রের নায়িকা হওয়ার চেয়ে ব্যারিস্টার হওয়াটা অনেক বেশি সন্মানজনক। তাই আমি আমার স্বপ্ন পূরণের জন্য মিডিয়ার জগতের রঙিন হাতছানি উপেক্ষা করে ২০০৮ সালের আগস্ট মাসে বার এট ল করতে লন্ডন চলে যাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published.