অ’ব’শে’ষে ফি’লি’স্তি’ন ই’স্যু’তে মু’খ খু’ল’ল ভা’র’ত

ফি’লি’স্তিনে’র গা’জা’য় গত এক সপ্তাহ ইসরায়েল যে ভ’য়া’ব’হ হা’ম’লা চা’লিয়ে যাচ্ছে তা অনেক’টাই ‘বি’র’ল ঘ’ট’না।

এর আগে হা’ম’লা চালালেও সে হা’ম’লা এতোটা তী’ব্র’ত’র ছিল না। পালটা জবাবও দিয়ে যাচ্ছে ফিলিস্তিনি প্র’তি’রো’ধ আ’ন্দো’ল’ন হামাস। চলমান এই সং’ঘা’ত নিয়ে ভারত উ’দ্বি’গ্ন বলে জানিয়েছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত দেশটির স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তি’রু’মূ’র্তি।

রোববার (১৬ মে) জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই ইস্যুতে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ কথা বলেছেন তিনি। ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের চলমান সং’ঘা’ত নিয়ে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিক বক্তব্য দিলো দেশটি।

এ প্রসঙ্গে টি এস তি’রু’মূ’র্তি বলেন, ভারত কোনো স’হিং’স’তা’র প’ক্ষে নয়। এই সং’ঘা’ত ব’ন্ধ করতে হবে। ভারত ফিলিস্তিনিদের ন্যা’য্য দা’বি’গু’লো’কে সমর্থন করে এবং দ্বিদেশীয় নীতির মাধ্যমে সং’ক’ট সমাধানের জন্য প্র’তি’শ্রু’তি’ব’দ্ধ।

তিনি আরও বলেন, গা’জা থেকে ই’স’রা’য়ে’লে যে র’কে’ট হা’ম’লা চালানো হচ্ছে তা অবশ্যই নি’ন্দ’নী’য়। র’কে’ট হা’ম’লা’য় একজন ভারতীয় না’গ’রি’কও নি’হ’ত হয়েছেন। তার মৃ’ত্যু’তে আমরা গভীরভাবে শো’কা’হ’ত। হা’ম’লা’র বদলা নিতে ই’স’রা’য়ে’ল যে হা’ম’লা চা’লি”য়ে’ছে তাতে প্রচুর বে’সা’ম’রিক নাগরিক নি’হ’ত হয়েছেন। যার মধ্যে না’রী ও শি’শুও রয়েছে।

তিরুমূর্তি বলেন, ভারত থেকে হাজারো মানুষ জে’রু’জা’লে’মে যান কারণ সেখানে একটি গু’হা রয়েছে যেখানে ভারতের সুফি সাধু বাবা ফরিদ ধ্যা’ন করতেন। ভারত এই গু’হা সংরক্ষণ করেছে। ই’স’রায়েল ও ফিলি’স্তি’নি প্রশাসনের মধ্যে আলোচনা আবারও শুরু করার প্রয়োজনীয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে। আলোচনা করা না গেলে ভবিষ্যতেও এ ধরনের সং’ঘা’ত আরও হবে।

এদিকে গত সোমবার (১০ মে) থেকে শুরু হওয়া সং’ঘা’তে’র দ্বিতীয় সপ্তাহে যু’দ্ধ’বি’র’তির আন্তর্জাতিক আহ্বান উপেক্ষা করেই স্থানীয় সময় সোমবার (১৭ মে) গাজায় কয়েক ডজন হা’ম’লা চালিয়েছে ইসরায়েল। অন্যদিকে হামাসও পাল্টা জবাব হিসেবে ইসরায়েলের শহরগুলোতে র’কে’ট হা’ম’লা চালিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু ইসরা’য়ে’ল ও ২০ লাখ জনসংখ্যার ঘনবসতিপূর্ণ গাজার শাসকগোষ্ঠী হামাসের মধ্যে ভ’য়ং’ক’র শ’ত্রু’তা’র অবসানের কোনো লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়, অন্যান্য দিনের মতো রোববার (১৬ মে) রাতভর গা’জা’র রাস্তা, নিরাপত্তা ভবন, হামাসের ট্রেনিং ক্যাম্প এবং আবাসিক ভবনগুলোতে বো’মা’ ব’র্ষ’ণ করেছে ইসরায়েল। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, গাজার বিভিন্ন অঞ্চলে রাতভর বো’মা হা’ম’লা’র শব্দ শো’না গেছে।

ইসরায়েলি সে’না’বা’হি’নী’র দাবি, গাজা থেকে বীর’সে’বা ও অ্যাশকেলন শহরে র’কে’ট হা’ম’লা’র পর তাদের যু’দ্ধ’বিমানগুলো উচ্চপদস্থ হামাসের নয়জন নেতার বাড়িতে হা’ম’লা চালায়। বাড়িগুলো অ’স্ত্রে’র গু’দা’ম হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছিল। তবে এসব হা’ম’লা’র ঘটনায় তাৎক্ষণিকভাবে হ’তা’হ’তের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.