Breaking News

মৌলভীবাজারে ১৫ ঘণ্টার অভিযানে বিরল প্রজাতির বনরুই উদ্ধার

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার রবিরবাজারের রাঙ্গিছড়া চা বাগানের জাপানপুঞ্জি থেকে একটি বিরল প্রজাতির বনরুই উদ্ধার করেছে বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ। র‌্যাব ও পুলিশের সহযোগিতার দীর্ঘ ১৫ ঘণ্টার রুদ্ধশ্বাস অভিযানের পর বনরুইটি উদ্ধার করে লাউয়াছড়া রেসকিউ সেন্টারে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ মে) মধ্যরাত থেকে অভিযানের পর বুধবার (১২ মে) বিকাল সাড়ে ৫টায় বনরুইটি উদ্ধার করা হয়।

মৌলভীবাজারস্থ বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, খাসিয়া মেঘা (ছদ্মনাম) নামের এক ব্যক্তি মোবাইল ফোনে ইনফরমারকে জানায় তার কাছে একটি বনরুই রয়েছে এবং সেটি সে বিক্রি করবে। পরে ইনফরমার বিষয়টি বনবিভাগকে জানায়। সংবাদ পাওয়ার পর বনবিভাগ দ্রুত রেসকিউ টিম নিয়ে ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে মাঠে নেমে পড়ে।

ওই টিমকে সহযোগিতা করে স্বেচ্ছাসেবী টিম (সিউ)। তারা প্রথমে কমলগঞ্জ উপজেলার পাত্রখোলা এবং কুরমা পুঞ্জিতে খবর নিয়ে ওই ব্যক্তিটির লোকেশন ট্রেস করে জানা যায় তার নাম মেঘা নয় জুয়েল। সে কুলাউড়া উপজেলার রবিরবাজারের রাঙ্গিছড়া চা বাগানের জাপানপুঞ্জির বাসিন্দা।

বনরুইটি উদ্ধারের জন্য টিমের সদস্যরা অভিযানের সময় জানতে পারেন মেঘা নামের কেউ নেই এলাকায়। পরে ওই ব্যক্তিটির লোকেশন ট্রেস করে রেসকিউ টিম বিকাল সাড়ে ৫টায় ঘটনাস্থলে পৌঁছে বনরুইটিকে উদ্ধার করে। পরে বনবিভাগের উপস্থিতিতে স্থানীয় বাসিন্দারা বন ও বন্যপ্রাণি রক্ষায় ভূমিকা রাখার আশ্বাস দেন। পরে উদ্ধারকৃত বনরুইটিকে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের রেসকিউ সেন্টারে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হয়।

এ ব্যাপারে লাউয়াছড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. সহিদুল ইসলাম বলেন, বিরল প্রজাতির বনরুইটিকে লাউয়াছড়া উদ্যানের জানকিছড়া রেসকিউ সেন্টারে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হয়েছে। পরে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি সাপেক্ষে অবমুক্ত করা হবে।

বন্যপ্রাণি ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ এর মৌলভীবাজারস্থ বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, সংবাদ পাওয়ার পর সার্বক্ষণিক তদারকির মাধ্যমে এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় আমাদের রেসকিউ টিম দীর্ঘ সময় অভিযানের পর বনরুইটি উদ্ধার করে।

Check Also

দৌলতপুরে ক্ষুধার জ্বালা সইতে না পেরে বৃদ্ধের আত্মহত্যা

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ক্ষুধার জ্বালা সইতে না পেরে ইদ্রস আলী (৭০) নামে এক বৃদ্ধ গলায় ফাঁস …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *