ভারতে ‘নার্সের ধর্ষণে’ করোনা রোগীর মৃত্যু

ভারতের মধ্যপ্রদেশের ভোপাল শহরে এক সরকারি হাসপাতালের পুরুষ নার্সের ধর্ষণের শিকার হয়ে চিকিৎসাধীন এক করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে। অভিযুক্ত ওই নার্স বর্তমানে পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

ভোপাল পুলিশের বরাতে ভারতের গণমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, অভিযুক্ত ওই নার্সের নাম সন্তোষ আহিরওয়ার (২৪)। বর্তমানে তিনি কারান্তরীণ আছেন।
ভোপালর নিশতপুর থানা পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা ইরশাদ ওয়ালি জানিয়েছেন, গত ৬ এপ্রিলে ঘটেছিল ঘটনাটি। ভোপালের ‘ভোপাল মেমোরিয়াল হসপিটাল অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার’ নামে একটি সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন ৪৩ বছর বয়সী ওই করোনা আক্রান্ত নারী।

চিকিৎসার নামে ৬ এপ্রিল ওই নারীকে ধর্ষণ করে সন্তোষ। তার ২৪ ঘণ্টা পরই মারা যান তিনি। তবে মারা যাওয়ার আগে নিশতপুর থানায় ও হাসপাতালের এক চিকিৎসকের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি, অভিযুক্ত ধর্ষক সন্তোষ আহিরওয়ারকে চিহ্নিতও করেছিলেন।

ঘটনা ঘটার এক মাস পর সেটি কেন জনসমক্ষে আনা হলো—প্রশ্নের জবাবে ইরশাদ ওয়ালি বলেন, ওই নারী অনুরোধ করেছিলেন, তার নাম যেন প্রকাশ না করা হয় এবং গোপনে যেন তদন্ত করা হয়। এ কারণে তদন্তকারী দল ছাড়া আর কাউকে এ বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি।

আরও পড়ুন
ভারতে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ ৪২০৫ জনের মৃত্যু
অক্সিজেন সংকটে ৫ মিনিটে ১১ করোনা রোগীর মৃত্যু
ভারতে করোনায় আক্রান্ত কমলেও মৃত্যু বেড়েছে
ইরশাদ ওয়ালি জানান, অভিযুক্ত ব্যক্তির বিরুদ্ধে এর আগেও যৌন হেনস্থার অভিযোগ রয়েছে এবং মদ্যপান করে ডিউটি করার অভিযোগও উঠেছিল তার বিরুদ্ধে।

তিনি বলেন, হাসপাতালের রোগীদের যথযথ নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হওয়ায় ওই হাসপাতালের নিরপত্তা বিভাগের কর্মকর্তাদেরও অভিযোগের আওতায় আনার বিষয়ে বিবেচনা করছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.