Breaking News

চৌম্বকক্ষেত্রের ব্যবহারে ভাসমান যান, বদলে যাবে বিশ্বের পরিবহন ব্যবস্থা

লাস ভেগাসের পরীক্ষা কেন্দ্রে যানবাহটির টিউব, এই টিউবের ভেতরেই চৌম্বকক্ষেত্রের ব্যবহারে ভেসে চলে যাত্রীবাহী পড। ছবি: রয়টার্স
ঘণ্টায় ৭৫০ মাইল গতিবেগের যাত্রীবাহী পড তৈরির নতুন প্রযুক্তি বিনির্মাণের কাজ করছে ভার্জিন হাইপারলুপ ও রিচার্ড ব্রানসনের ভার্জিন গ্রুপ।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেভাডা প্রদেশের লাস ভেগাসের উত্তরের মরুভূমিতে পাহাড়ের পাদদেশে এর পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। উচ্চগতির এ শক্তি সাশ্রয়ী পরিবহন ব্যবস্থা বিশ্বের পরিবহন ব্যবস্থাকে আমূলে বদলে দিতে পারে।

দেখা যাচ্ছে, একটি টিউব বা নলের মধ্য দিয়ে পডের চলাচল। এ চলাচলের ফলে এ ব্যবস্থায় ঘর্ষণজনিত বাধা থাকে না। টিউবের মধ্যে পডটি প্রবেশের পর টিউবের দেয়াল ও পডের গাত্রে বিপরীতমুখী চৌম্বকক্ষেত্র তৈরি হয়। ফলে পডটি টিউবের কোনো অংশ স্পর্শ না করে বাতাসে ভেসে ওঠে, সেই অবস্থাতেই অত্যন্ত দ্রুত বেগে ও কোনো শব্দ ছাড়াই আধুনিক এ যানটি চলাচল করতে পারে।
ভার্জিন হাইপারলুপের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী জশ গিগেল বলেন, ‌এটি চলা শুরু হতেই মনে হচ্ছিল বিমান আকাশে উড়াল দিচ্ছে।

অত্যাধুনিক এ পডটি বর্তমানে ২৮ জন যাত্রী পরিবহনের উপযোগী করে তৈরি করা হয়েছে, স্বল্প বা দীর্ঘ দূরত্বে যাতায়াত ও মালামাল বহনের উপযোগী করেও বিশেষায়িত পড নির্মাণ সম্ভব।

এখনো এটি প্রাথমিক পর্যায়ে। ২০২৭ সাল নাগাদ বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরুর কথা ভাবছেন ভার্জিন হাইপারলুপের জশ গিগেল। তিনি জানান, গাড়ি, ট্রেন ও প্লেনের মতোই ১০০ বছরের মধ্যে পরিবহন ব্যবস্থায় বিপ্লব ঘটানো প্রথম যানবাহন হতে চলেছে এটি।

সূত্র: রয়টার্স

Check Also

১৩ কোটি টাকায় প্রাণ ফিরবে সাত মরা খালে

বরিশাল নগরীতে দুই পাড় দখল হওয়া সাতটি খাল সংস্কারের মাধ্যমে প্রাণ ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *