1. ataurrahmanlabib2017@gmail.com : News Live : News Live
  2. sawontheboss4@gmail.com : Toufiq Hassan : Toufiq Hassan
January 16, 2022, 5:41 pm

সবার থেকে কম রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচ জেতালেন মুস্তাফিজ

রিপোর্টার
  • আপডেট টাইম Monday, May 3, 2021
  • 89 Time View

বাটলারে ঝড়ো ব্যাটিং আর মুস্তাফিজের আগুন ঝড়া বোলিংয়ে রাজস্থান রয়েলস ৫৫ রানে সানরাইজ হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ৩য় জয় পেলো। এই জয়ের মধ্য দিয়ে রাজস্থান রয়েলস পয়েন্ট টেবিলের ৫ম স্থানে উঠে এসেছে।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে রান পাহাড় গড়ে রাজস্থান রয়্যালস। যাতে সবচেয়ে বড় অবদান রাখলেন জস বাটলার। ডানহাতি ইংলিশ ব্যাটসম্যানের প্রথম টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরিতে ৩ উইকেটে ২২০ রান করেছে প্রথম আসরের আইপিএল চ্যাম্পিয়নরা। এটি এই আসরের দ্বিতীয় যৌথ সর্বোচ্চ দলীয় রান।

৩৯ বলে চারটি চার ও দুটি ছয়ে এই আসরে নিজের প্রথম হাফ সেঞ্চুরি করেন বাটলার। বাকি পঞ্চাশ করতে খেলেছেন আর মাত্র ১৭ বল। ৫৬ বলে ১০ চার ও ৫ ছয়ে শতক হাঁকান তিনি। এই আইপিএলে তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে সেঞ্চুরি করলেন বাটলার। তার আগে ক্লাব সতীর্থ ও অধিনায়ক সাঞ্জু স্যামসন ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর দেবদূত পাডিক্কাল একশ করেন।

১৯তম ওভারের শেষ বলে আউট হওয়ার আগে বাটলার তিনটি ছয় ও একটি চারে তোলেন ২৪ রান। সন্দীপ শর্মা তাকে বোল্ড করেন ১২৪ রানে। ৬৪ বলের ইনিংসে ছিল ১১ চার ও ৮ ছয়। এই আসরের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স করে মাঠ ছাড়েন বাটলার।

১৭ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর স্যামসনের সঙ্গে ১৫০ রানের জুটি গড়েন রাজস্থানের ইংলিশ ওপেনার। ৪৮ রান করে স্যামসন বিদায় নেওয়ার পর বাটলারের ব্যাটেই দুইশর ঘরে পৌঁছায় তারা। শেষ ওভারে রিয়ান পরাগ ও ডেভিড মিলার ১১ রান তোলেন।

২২১ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করে দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান মনিশ পান্ডে এবং জনি বেয়ারস্টো। পাওয়ার প্লেতে এই দুইজন যোগ করেন ৫৭ রান। ইনিংসের সপ্তম ওভারের নিজের দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে আসেন মুস্তাফিজ। দলের বিপদের মুহূর্তে প্রথম বলেই ব্রেকথ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান।

ওভারের প্রথম বলে বিধ্বংসী মনিশ পান্ডেকে ক্লিন বোল্ড আউট করেন মুস্তাফিজ। ২০ বলে ৩১ রান করে আউট হন মনিশ পান্ডে। এরপরে ছন্দ পতন হয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদের। দলীয় ৭০ রানের মাথায় আরেক ওপেনার ব্যাটসম্যান জনি বেয়ারস্টো প্যাভিলিয়নে ফেরেন রাহুল তেওয়াতিয়া।

৩০ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন জনি বেয়ারস্টো। দলীয় ৮৫ রানের মাথায় বিজয় শঙ্করকে ৮ রানে আউট করে রাজস্থানকে তৃতীয় উইকেট এনে দেন ক্রিস মরিস। দলীয় ১০৫ রানের মাথায় অধিনায়ক উইলিয়ামসনের উইকেট তুলে নেন তরুণ ফাস্ট বোলার কার্তিক ত্যাগী। ২০ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন উইলিয়ামসন।

তবে এর পরেই রাজস্থানের গলার কাঁটা হয়ে ওঠেন আফগানিস্তানের অল রাউন্ডার মহম্মদ নবী। তবে সেই সময়ে মুস্তাফিজকে বোলিংয়ে আনেন অধিনায়ক সঞ্জু স্যামসন। অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দেন তিনি। ওভারের দ্বিতীয় বলেই নাবিকে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মোস্তাফিজুর রহমান। ৫ বলে দুটি ছক্কায় ১৭ রান করেন তিনি।

দলীয় ১৪২ রানের মাথায় জোড়া উইকেট তুলে নেন ক্রিস মরিস। আব্দুল সামাদ এবং কেদার যাদবের উইকেট তুলে নেন তিনি। এর পরের ওভারেই রশিদ খানকে শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মুস্তাফিজুর রহমান। এরপর ১৬৫ রানে সানরাইজের ইনিংস শেষ হয়। মুস্তাফিজ ৪ ওভারে মাত্র ২০ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলেনিয়েছে।

রাজস্থান রয়্যালস একাদশ: জস বাটলার, যশাসভী জয়সওয়াল, সঞ্জু স্যামসন, ডেভিড মিলার, রিয়ান পরাগ, অনুজ রাওয়াত, রাহুল তেওয়াতিয়া, ক্রিস মরিস, কার্তিক ত্যাগী, চেতন সাকারিয়া, মুস্তাফিজুর রহমান।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ একাদশ: আব্দুল সামাদ, জনি বেয়ারস্টো (উইকেট কিপার), মনীশ পান্ডে, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, কেদার যাদব, রশিদ খান, মোহাম্মদ নাবি, ভুবনেশ্বর কুমার, সন্দীপ শর্মা, খলিল আহমেদ।

শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এছাড়া আরো সংবাদ
2020সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | নিউজলাইভ 24.কম সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন
উন্নয়নেঃ সাইট পুল