হচ্ছে না বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্য: সরিয়ে নেওয়া হলো নির্মাণ সামগ্রী

রাজধানীর ধোলাইপাড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য বসানোর স্থান। -ফাইল ছবি
রাজধানীর ধোলাইপাড় মোড়ে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের আওতায় নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য আপাতত হচ্ছে না। সব নির্মাণ সামগ্রী সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (২ এপ্রিল) গভীর রাতে এসব সামগ্রী সরিয়ে নেওয়া হয়। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আর হচ্ছে না বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য।

এ বিষয়ে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সবুজ উদ্দিন খান বলেন, নির্মাণাধীন স্থান থেকে নির্মাণ সামগ্রী সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। আপাতত কাজ বন্ধ আছে। পুনরায় অনুমতি পেলে আবার কাজ শুরু হবে।

শনিবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ধোলাইপাড় মোড়ে যে স্থানটিতে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের কথা ছিল, সেখানে ইট-কাঠ, বালু, সিমেন্ট, রড, টিন, বেষ্টনী ত্রিপল— কোনো কিছুই নেই। কেবল ভাস্কর্যের বেদীটা সেখানে রয়ে গেছে।

স্থানীয় বাস কাউন্টারের ম্যানেজার কাউসার হোসেন জানান, শুনছি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য আর এখানে হবে না। গতকাল (শুক্রবার) গভীর রাতে পুলিশের বড় বড় ট্রাক এসেছিল। র‌্যাবের গাড়ি এসেছিল। অনেক পুলিশ সদস্য সেখানে ছিলেন। তখন চারদিক দিযে ঘেরা ত্রিপল নিয়ে যান। আজ শুনলাম বেষ্টনীর টিনও নিয়ে যাওয়া হবে। এখানে আর কোনো ভাস্কর্য হবে না। ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের একাধিক কর্মকর্তা ও ভাস্কর্য নির্মাণের সঙ্গে সম্পৃক্তদের সঙ্গে কথা বলে আমি এসব জেনেছি।

প্রসঙ্গত, বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে সারাদেশে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য তৈরির সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এরই অংশ হিসেবে পদ্মাসেতু দিয়ে ঢাকার প্রবেশমুখ রাজধানীর ধোলাইপাড় মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণের কাজ শুরু হয়। কিন্তু হেফাজত ইসলাম ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশসহ বিভিন্ন ধর্মভিত্তিক রাজনৈতিক দল ভাস্কর্য নির্মাণের বিরোধিতা করে। এক পর্যায়ে বিষয়টি নিয়ে সারাদেশে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে হেফাজত ইসলামের একটি প্রতিনিধি দল সরকারের উচ্চ পর্যায়ের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেই বৈঠকের পর ধোলাইপাড় মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ বন্ধ হয়ে যায়। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (২ এপ্রিল) রাতে সেখান থেকে সব নির্মাণ সামগ্রী সরিয়ে নেওয়া হলো।

বার্তা বাজার/এসজে

Leave a Reply

Your email address will not be published.