এইমাত্র প্র’কাশ করা হলো বুবলীর কন্যা সন্তানের বাবার নাম!

সময়ের সাথে সাথে পাল্লা দিয়ে যে কয়জন অভিনেত্রী ঢাকায় সিনেমায় জায়গা করে নিয়েছেন তার মধ্যে বুবলী অন্যতম। বরাবরই তিনি আলোচনার শী’র্ষে থাকেন। ফের আলোচনায় এসেছেন এই বিউটি কুইন। নতুন খবর হচ্ছে, ঢালিউড অভিনেত্রী শবনম বুবলী কন্যা সন্তানের মা হয়েছেন বলে গুঞ্জন ছ’ড়িয়ে প’ড়েছে। কয়েকদিন ধ’রে এটিই ‘টক অব দ্য শোবিজ’। শোবিজ সংশ্লি’ষ্টদের অনেকের সামাজিকমাধ্যম অ্যাকাউন্টে আ’কার-ই’ঙ্গিতে এমন লেখালেখিও ক’রতে দেখা যাচ্ছে।

বুবলীর সন্তানের বাবা শাকিব খান বলেই ই’ঙ্গিত করছেন তারা। এমতাবস্তায়, বুবলী যেহেতু প্র’কাশ্যে এসেছেন, সময় হলেই এ ব্যাপারে সব পরি’ষ্কার করবেন তিনি। তার মানে বুবলীর নাটকের শেষ দৃ’শ্য এখনও বাকি। এখন অপেক্ষা শুধু শেষ দৃ’শ্য সামনে আসার, অপেক্ষা সত্য প্র’কাশের।
আরো পড়ুন:বিচারকদের স’ঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী অনন্য প্রতিভা’য়
জনপ্রিয় স্যাটেলাইট চ্যানেলে এনটিভির উদ্যো’গে ও জিপিএইচ ইস্পাতের সহযোগিতায় সারা দেশ থেকে প্রতিভা খুঁজে নিয়ে সেমি ফাইনাল পর্যন্ত ত্রিশ’জন প্রতিযোগিকে চূড়ান্ত ক’রেছেন প্রধান তিন বিচারক সালাহ উদ্দিন লাভলু, মেহের আফরোজ শাওন ও হৃদয় খান।

‘অনন্য প্রতিভা’ শিরোনামের এই অনুষ্ঠানটির সেমি ফাইনাল পর্বে সম্মানিত অতিথি বিচারক হিসেবে উপস্থিত হয়েছিলেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। এর আগে সারা দেশ থেকে প্রাথমিক পর্যায়ে ছয়টি বিভাগীয় শহর থেকে প্রাথমিক পর্যায়ের

তিন বিচারক শানারেই দেবী শানু, আইরিন ও পুলক ১৪২ জন অনন্য প্রতিভাকে খুঁজে নিয়ে আসেন। সেখানে পরবর্তীতে আরো আটজনকে যুক্ত করা হয়। জা’নান অনুষ্ঠানটির প্রযোজক ও পরিচালক ওয়াহিদুল ইসলাম শুভ্র। ১৫০ জন থেকে কোয়ার্টার ফাইনালের
যাত্রা শুরু হয়। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে সেমি ফাইনালে গিয়ে ত্রিশ জন থাকে। ত্রিশ থেকে চঞ্চল চৌধুরী ও প্রধান তিন বিচারক ফাইনাল রাউন্ডের জন্য আঠারো জনকে চূড়ান্ত করেন। সেমি ফাইনালে সম্মানিত অতিথি বিচারক হিসেবে উপস্থিত থাকতে পেরে বেশ আনন্দিত ছিলেন চঞ্চল চৌধুরী।

চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘এই অনুষ্ঠানের বিচারক হিসেবে কাজ করার অনুভূতি সত্যিই এক কথায় অসাধারণ। কিছু কিছু পারফর্মা’রদের পারফর্ম্যান্স আমা’র কাছে এতো বেশি ভালো লে’গেছে যে সত্যিই তারা এই দেশের অনন্য প্রতিভা। তবে আয়োজকদের কাছে আমা’র
অনুরো’ধ থাকবে, তাদের শুধু খুঁজে বের করে চ্যাম্পিয়ন রানার্স আপু পুরস্কার দিয়ে দিলেই হবেনা। পরবর্তীতে তারা কী করছে সেই ফলোআপটা সবাইকে জা’নাতে হবে। তাদেরকে দিক নির্দে’শনা দিতে হবে। তাহলে আগামীতে আম’রা আরো প্রতিভাবান পাবো।’

অনুষ্ঠানটির প্রযোজক ও পরিচালক ওয়াহিদুল ইসলাম শুভ্র বলেন, ‘আশা করছি আগামী মে মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে অর্থাৎ ঈদের পরপরই ‘অনন্য প্রতিভা’ অনুষ্ঠানটির বিভিন্ন পর্ব প্র’চার শুরু হবে। এরইমধ্যে অনুষ্ঠানটি টিভি পর্দায় দেখা নিয়েই অনেকেই অধীর আগ্রহ
নিয়ে অপেক্ষা করছেন। সারা দেশের নানান বয়সের নানান ধ’রনের প্রতিভাবান মানুষ এই অনন্য প্রতিভা অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ ক’রেছেন। অনেকের অনেক মেধা থাকার পরও আমাদের সীমাবদ্ধতার কারণে সবাইকে অনন্য প্রতিভা’র ছায়াতলে নিয়ে আসতে পারিনি। কিন্তু

আমা’র বিশ্বা’স যারা এই অনন্য প্রতিভা’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নিজেদের প্রতিভাকে বিকশিত করার একটি প্লাটফরম পেলেন, নিজেদের প্রতি আত্মবিশ্বা’স এসেছে। তারা নিজে’রাই আগামীতে নিশ্চয়ই একটি অব’স্থান করে নিতে পারবেন নিজেদের প্রতিভা দিয়ে। ধন্যবাদ চঞ্চলচৌধুরী ভাইকে সেমি ফাইনালে বিশেষ অতিথি বিচারক হিসেবে আমাদেরকে সময় দেবার জন্য।’ ছবি : আলিফ হোসেন রিফাত

Leave a Reply

Your email address will not be published.