চাঁদা তুলে অ্যাম্বুলেন্স কিনলো এলাকাবাসী!

রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার দেওপাড়া ইউনিয়নটি ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী অধ্যুষিত একটি এলাকা।অ্যাম্বুলেন্সের অভাবে পথেই সন্তান জন্ম দিয়েছেন প্রসূতি। অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার সময় মারা গেছেন কেউ কেউ।তাই এইসব সমস্যার সমাধানে ইউনিয়নের বাসিন্দারা নিজেদের টাকায় নতুন একটি অ্যাম্বুলেন্স কিনেছেন।বুধবার (১৮ মার্চ) বিকালে ইউপি কার্যালয় চত্বরে এই অ্যাম্বুলেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

যারা অ্যাম্বুলেন্স কেনার জন্য টাকা দিয়েছিলেন তাদের প্রত্যেককে চিঠি দিয়ে এ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়। দলমত নির্বিশেষে সকল শ্রেণি-পেশার মানুষ এতে অংশ নেন। অনুষ্ঠানের শুরুতেই ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে তাদের একটি করে গোলাপ দিয়ে অভিনন্দন জানানো হয়।

গোদাগাড়ী উপজেলারর দেওপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান আক্তার বলেন, দু’বছর আগে তিনি ১০ হাজার টাকা দিয়ে তহবিল চালু করেছিলেন।

তারপর পরিষদের সকল সদস্য, কর্মকর্তা-কর্মচারী এমনকি গ্রাম পুলিশেরাও টাকা দিয়েছেন। যারা বিভিন্ন ভাতা ভোগ করেন তাদেরও বুঝিয়ে টাকা দিতে বলা হয়। তারা টাকা দিয়েছেন। সর্বমোট ১ হাজার ৪৯৯ জন ব্যক্তির নাম লেখা আছে দাতা হিসেবে।

চেয়ারম্যান আরও বলেন, টাকা কেন দিতে হবে? কেউ কেউ তাচ্ছিল্য করেছেন। তাদেরও বিষয়টা বোঝানো হয়েছে। পরে সবাই স্বপ্রণোদিত হয়ে টাকা দিয়েছেন।

একজন সর্বনিন্ম ৪৫ টাকা পর্যন্ত দিয়েছেন এই তহবিলে। মোট ১৫ লাখ টাকা উঠেছে। এর মধ্যে ৯ লাখ ৫০ হাজার টাকায় অ্যাম্বুলেন্স কেনা হয়েছে। বাকি টাকা এখনও তহবিলে আছে।

অ্যাম্বুলেন্স কিনতে যাওয়া থেকে অন্যান্য খরচ এই তহবিল থেকে করা হয়নি। আপনার বাড়ির সামনে দিয়ে অ্যাম্বুলেন্স গেলে আপনি বুক উঁচিয়ে বলবেন আমার টাকায় কেনা অ্যাম্বুলেন্স যাচ্ছে।ইত্তেফাক/এনএ

Leave a Reply

Your email address will not be published.