মামুনুল হককে গ্রেফতারের দাবি

সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার নোয়াগাঁও গ্রামে হিন্দুদের বাড়িঘরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হককে গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়েছে।
শাল্লার ঘটনার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সিলেটে বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে এমন দাবি জানানো হয়।

এছাড়া এ ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। এর মধ্যে একটি আক্রান্ত এক সংখ্যালঘু বাদী হয়ে এবং অপরটি পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করেছে। পুলিশের মামলার বাদী এসআই আব্দুল করিম। তবে অপর মামলার বাদীর নাম নিরাপত্তার কথা বলে জানতে দেয়নি পুলিশ।

এই দুই মামলায় আসামি করা হয়েছে প্রায় ১ হাজার ৬০০ জনকে। এর মধ্যে আক্রান্ত সংখ্যালঘুর মামলায় ৭০ জনের নামোল্লেখ ছাড়াও অজ্ঞাত ১৫০০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। পুলিশ বাদী হয়ে দায়ের করা মামলায় অভিযুক্ত করা হয়েছে ১৫০ জনকে।

শাল্লা থানার ওসি মো. নাজমুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মামলা দুটি দায়ের হয়। তবে মামলায় অভিযুক্ত কেউই আটক বা গ্রেফতার নেই বলে জানান তিনি।
তিনি আরও জানান, পরিস্থিতি বিবেচনায় আক্রান্ত নোয়াগ্রামের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। অব্যাহত রয়েছে পুলিশি টহল।

সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণে এ বিক্ষোভ কর্মসূচির আয়োজন করে নাগরিক মোর্চা দুষ্কাল প্রতিরোধে আমরা। বিকালে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে নগরীর জিন্দাবাজার পয়েন্ট ঘুরে আবার শহিদ মিনার চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। এরপর সেখানে বিক্ষোভ সমাবেশ করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.