মিয়ানমার জান্তার বিরুদ্ধে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা এনএলডি নেতাদের

মিয়ানমারে সেনাবাহিনীর অভ্যুত্থানের পর দেশটির নেত্রী অং সান সু চির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) লুকিয়ে থাকা রাজনীতিবিদরা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

লুকিয়ে থাকা রাজনৈতিকদের নিয়ে গঠিত একটি কমিটির প্রধান মাহন উইন খিয়াং থান বলেছেন, এটা জাতির জন্য সবচেয়ে অন্ধকারাচ্ছন্ন মুহূর্ত, তবে খুব তাড়াতাড়ি আলোর দেখা পাওয়া যাবে। খবর রয়টার্সের

সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করতে গিয়ে শনিবারই অন্তত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে বেসামরিক সরকারকে হটিয়ে সেনাবাহিনী মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে। নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চি ও এনএলডির অধিকাংশ নেতাকে হয় কারাগারে না হয় বাড়িতে বন্দি করে রেখেছে সেনাবাহিনী। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়েছে ২ হাজারের ১০০-এর বেশি মানুষকে।

অভ্যুত্থানের পর থেকেই মিয়ানমারজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। এ পর্যন্ত সেনা সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে ৮০ জনেরও বেশি প্রাণ হারিয়েছেন।

এনএলডির যে এমপিরা গ্রেপ্তার এড়াতে পেরেছেন, তারা পালিয়ে নতুন একটি গ্রুপ তৈরি করেছেন, যার নাম কমিটি ফর রিপ্রেজেন্টিং পাইডুংসু হলত্তু (সিআরপিএইচ)। এই গ্রুপের ভারপ্রাপ্ত প্রধান হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছেন মাহন উইন খিয়াং থান।

মিয়ানমারের বৈধ সরকার হিসেবে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি দাবি করছে সিআরপিএইচ।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক বার্তায় মাহন উইন খিয়াং থান বলেন, এটা এমন একটা সময় যখন অন্ধকারের বিরুদ্ধে আমাদের নাগরিকদের লড়াই করার ক্ষমতার পরীক্ষা হচ্ছে। অতীতে আমাদের মধ্যে বিভেদ থাকলেও এখন অবশ্যই আমাদের হাতে হাত ধরে সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।

সিআরপিএইচকে একটি অবৈধ গ্রুপ বলে মনে করে সামরিক বাহিনী। তারা সতর্ক করে দিয়েছে, এই কমিটিকে যারা সহায়তা করবে, তাদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.