হঠাৎ সিন্ধান্ত নিলাম, দুদিনেই দুটি ডুপ্লেক্স বাড়ির মালিক থেকে গৃহহীন হয়ে গেলাম : ন্যান্সি

দেশের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্সি প্রায় সময় নানা বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখালেখি করে থাকেন। এমনি তিনি তার পারিবারিক বিষয়ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তুলে ধরেন। আর এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পীর জন্ম স্থান নেত্রকোনায়। তার শ্বশুরবাড়ি হচ্ছে ময়মনসিংহে। তিনি বর্তমানে তার শ্বশুরবাড়ি বসবাস করছেন। এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী দুই সন্তান রয়েছে। তার সংসারে দুই মেয়ে ও তার স্বামী। এবার এই জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

স্বামী নাজিমুজ্জামান জায়েদ ও দুই মেয়ে নায়লা ও রোদেলাকে নিয়ে তার সংসার। ময়মনসিংহ ও নেত্রকোনায় \’দরবারি\’ ও \’বিলাবল\’ নামে দুটি বাড়ি রয়েছে ন্যান্সির।

সেই বাড়ি দুটি একমাত্র ছোট ভাই শাহরিয়া আমান সানিকে দিয়েছেন ন্যান্সি। এ বিষয়ে ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। নিচে সেটি ‍তুলে ধরা হলো :

\’দরবারি\’ আমার ময়মসিংহের বাসার নাম, \’বিলাবল\’ আমার নেত্রকোনার বাসার নাম। হঠাৎ সিন্ধান্ত নিলাম, এসব বৈষয়িক ঝামেলা থেকে মুক্ত হওয়া দরকার। জায়েদ আমার উপার্জন অথবা বিষয়-সম্পত্তি নিয়ে কখনোই নাক গলায়নি। বরং সে বরাবরই নিজের পৈতৃক সম্পত্তির ক্ষেত্রেই উদাসীন! কাজেই বলা চলে এসব ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত নেওয়ার বেলায় আমি শতভাগ স্বাধীন।

দুই কন্যার মতামত জানা দরকার বলে মনে হলো। নায়লা যেহেতু মতামত জানাবার মতো বয়সে এখনো আসেনি, তাই রোদেলাকেই জানালাম, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমার দুটো বাড়ি দান করে দেব। তোমার কি কোনো আপত্তি আছে? উত্তরে মেয়ে স্পষ্ট গলায় বলল, \’তোমার সম্পত্তি তুমি যাকে খুশি তাকে দাও, আমাকে জিজ্ঞেস করার কি আছে! আমি নিজের যোগ্যতায় কিছু করতে চাই। মনে হলো সন্তানকে ঠিকভাবেই মানুষ করতে পেরেছি, খুব আনন্দ হলো.. খুব.. খুব.. খুব।

ন্যান্সির সেই দুটি বাড়ি
একমাত্র বান্ধবী হ্যাপি, যার প্রধান কাজ আমার সকল সঠিক বা বেঠিক কাজে সায় দিয়ে যাওয়া, বরাবরের মতো সে একই চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করেছে। এদিকে আমার ইচ্ছে জানার পরে গ্রহীতার চেহারা দেখবার মতো ছিল। আমি তারপর কয়েকজন এর সঙ্গে পরামর্শ করলাম, কিন্ত সবাই আমায় নিরুৎসাহিত করল। তাতে অবশ্য কিছুই যায় আসেনা। কারণ সারাজীবন আমি নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থেকেছি। ঠকেছি, শিখেছি, বারবার হেরেছি কিন্ত পথ চলা থামাইনি।

দুদিনের মধ্যে দুটো ডুপ্লেক্স বাড়ির মালিক থেকে গৃহহীন হয়ে গেলাম! আপাতত সম্বল স্বামীর ঘর, পরে কী হবে সেটা পরে দেখা যাবে। আর মৃ\’\’ত্যু\’\’র পরে মাটির ঘর তো আছেই। বেশ হালকা লাগছে, যেন কোনো চাপ নেই। মধ্যবিত্ত পরিবারের সম্পদ নামের ক\’\’দ\’\’র্য সং\’\’ঘা\’\’ত থেকে আমি মুক্ত।

আমি পৃথিবী ঘুরতে চাই, প্রানখুলে হাসতে চাই, চিৎকার করে কাঁদতে চাই, গান গেয়ে যেতে চাই। এসবের জন্য যতটুকু অর্থের প্রয়োজন সেটা আমার আছে, ওতেই চলবে। বাড়ি দুটোর বর্তমান মালিক আমার একমাত্র ছোট ভাই শাহরিয়া আমান সানি। তবে বাড়ির মালিক সানি হলেও আজীবন এ বাড়িতে থাকবার অধিকার কেড়ে নেয়া হয়নি। এই বেশ ভালো আছি। সূত্র:

উল্লেখ্য, এই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী একাধিক গান গেয়েছেন। আর তার সেই সকল গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। তিনি একটা সময় তার নিজ গ্রামে দুইটি ডুপ্লেক্স বাড়ি নির্মান করেন। তবে বর্তমানে এই জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী তার শ্বশুরবাড়ি। যার কারণে তিনি তার সেই দুইটি ডুপ্লেক্সম বাড়ি একমাত্র ছোট ভাইকে দিয়ে দিয়েছেন। আর এই সংবাদ তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তুলে ধরেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.