Breaking News

নায়ক শাহীনের লা`শ দা`ফন নিয়ে চরম বিপাকে ছেলে!

দেশের চলচ্চিত্রের এক সময়ের ব্যস্ত চিত্রনায়ক শাহীন আলম না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন। সোমবার (৮ মার্চ) রাত ১০টা ৫ মিনিটে মা’রা যান তিনি। শাহীন আলমের লা’শ দাফন নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন তার ছেলে। অসহায়ের মতো কব’রস্থানের সামনে শাহীন আলমের ম’রহে’দ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছেন তার ছেলে ফাহিম আলম।মঙ্গলবার সকালে ফাহিম বলেন, আমার বাবার লা’শ বনানী কব’রস্থানে দা’ফনের জন্য নিয়ে এসেছি। এখানে আমার চাচার কব’রের স্থানে বাবার ম’রদে’হ দা’ফনের কথা ছিল।

কিন্তু কবর কমিটি লোকেরা তাতে বাধা দেয়। তাদের বক্তব্য, মেয়রের অনুমতি নিয়ে সেখানে দা’ফন করতে হবে।এ বিষয়ে দা’ফনে অংশ নেয়া একজন জানান, নায়ক শাহিন আলমের দা’ফনে এসেছি। কিন্তু এসে দেখছি এখানে একজনের ক’বরের ওপর আরেকজনের দা’ফন করতে চাইলে একটি নির্দিষ্ট সময় পার করতে হয়। সেই সময়ও পার হয়েছে কিন্তু তারা দা’ফন করতে দিচ্ছে না। তিনি বলেন, এ বিষয়ে শাহীন আলমের ছেলে শিল্পী সমিতির একাধিক নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তারা কোনো সহযোগিতা করেননি।

আরও পড়ুনঃভালোবাসা দিবসে তামিমা সুলতানা তাম্মিকে বিয়ে করেন জাতীয় দলের সাবেক ক্রিকেটার নাসির হোসেন। নতুন সংসার শুরু করতে না করতেই নাসিরের বিয়ে নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। তামিমার সাবেক স্বামী রাকিব হাসান দাবি করেন, তালাক না দিয়েই নাসিরকে বিয়ে করেছেন তামিমা।

তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করেন তামিমা ও নাসির। এরপর সংবাদ সম্মেলন করে তামিমা তার আগের স্বামীকে তালাক প্রসঙ্গে বক্তব্য দেন। কিন্তু তার সেই বক্তব্যের সঙ্গে পাসপোর্টের তথ্য কোনাভাবেই মিলছে না।তামিমার দাবি, ২০১৭ সালেই স্বামী রাকিব হাসানকে তালাক দেন। কিন্তু পুলিশ বলছে-২০১৮ সালের পাসপোর্ট আবেদনে স্বামী হিসেবে তিনি রাকিবের নামই উল্লেখ করেন।

আর এ কারণেই ফেঁসে যেতে পারেন ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রী বিমানবালা তামিমা তাম্মি।ডির্ভোসের পরও তামিমা কেন স্বামী হিসেবে রাকিবের নাম লিখেছেন, সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত পিবিআই (পু’লিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন)। এ জন্য শিগগির তামিমাকে পুলিশের জেরার মুখোমুখি হতে হবে।

পুলিশ বলছে, পাসপোর্টে দেওয়া তথ্য সঠিক হলে তালাক সংক্রান্ত তথ্য অসত্য। আবার যদি তালাক দেওয়াকে সঠিক ধরে নেওয়া হয়, তাহলে পাসপোর্টে অসত্য তথ্য দেওয়ার কারণে তার পাসপোর্ট বাতিলসহ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া সুযোগ থেকে যাচ্ছে। আর পাসপোর্ট বাতিল হলে তার কেবিন ক্রুর চাকরিটি হারাতে হতে পারে।

জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি উত্তরা অফিসে পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন করেন তামিমা। আবেদনে তিনি ব্যক্তিগত তথ্যের জায়গায় বাবা-মায়ের পাশে স্বামী হিসেবে রাকিব হাসানের নাম লিখেছেন।এমনকি পাসপোর্ট আবেদনে জরুরি যোগাযোগের জন্য তিনি রাকিবের নাম এবং মোবাইল নম্বরও যুক্ত করেন। ২০১৮ সালের ১১ মার্চ তাকে পাসপোর্ট দেওয়া হয়। যার মেয়াদ রয়েছে ২০২৩ সালের ৩ মার্চ পর্যন্ত।

Check Also

‘স্বাধীন ওয়াইফাই দিচ্ছে ৯৯ টাকায় ৬০০ জিবি ইন্টারনেট’

মোবারক হোসেন, প্রধান নির্বাহী, প্লেক্সাস ক্লাউড দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক মোট ১১ কোটি, এর অধিকাংশই মোবাইল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *