ঐশ্বরিয়ার স্বর্ণখচিত সেই শাড়ির দাম ৭৫ লাখ!

১৪ বছর পরেও বলিউডের পাওয়ার কাপল অভিষেক বচ্চন ও ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের বিয়ে নিয়ে বি-টাউনবাসীর আগ্রহের কমতি নেই। ওই সময়ে মানুষ ঘরে বসে টেলিভিশনের পর্দায় দেখেছিলেন বর-কনের রাজকীয় আয়োজন।

বহু বছর ধরে তাঁদের বিয়ে আলোচনায়। আজও সবার হয়তো মনে পড়বে, সাবেক বিশ্বসুন্দরীর পরনে ঐতিহ্যিক কাঞ্জিভরম শাড়ির কথা। মনে পড়বে রাজপুত্রের সাজে অভিষেকের কথা।

২০০৭ সালের ২০ এপ্রিল। এ দিন ঐশ্বরিয়া ও অভিষেক বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হয়ে ভারতবাসীকে চমকে দিয়েছিলেন। এ দম্পতির প্রতি ভক্তদের ভালোবাসা অসীম। ২০১১ সালে তাঁদের কোলজুড়ে আসে কন্যাসন্তান, নাম আরাধ্যা বচ্চন।

ঐশ্বরিয়া ও অভিষেকের বিয়ের দিনে ফিরে গেলে বলা যায়, ভারতের অন্যতম বড় বিবাহোৎসব ছিল সেটি। আর ঐশ্বরিয়ার অন্যতম ব্যয়বহুল ওয়েডিং লুক দেখে চোখ কপালে উঠেছিল ভারতবাসীর। যাঁরা আজও অবগত নন, তাঁরা জেনে নিন, ওই দিন ঐশ্বরিয়া পরেছিলেন সুন্দর সোনালি কাঞ্জিভরম শাড়ি ও ঐতিহ্যিক অলংকার, যা ঐশ্বরিয়ার লুককে করেছিল অপ্সরার মতো।

আর শাড়ির দাম বলার আগে জানা জরুরি, কে ছিলেন সেই মাস্টারপিসের ডিজাইনার? হ্যাঁ, ওই গর্জিয়াস বিয়ের শাড়ি তৈরি করেছিলেন ফ্যাশন ডিজাইনার নীতা লুল্লা। স্বর্ণের পাড় আর দামি পাথরখচিত ছিল সেই শাড়ি। গেল বছর বলিউড শাদিস ডটকমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, সত্যিকারের স্বর্ণ দিয়ে মোড়া ছিল শাড়িটি, সঙ্গে প্রচুর দামি পাথর। আর সেই শাড়িটির দাম ছিল ৭৫ লাখ রুপি এবং এটিই তখন ছিল সবচেয়ে দামি শাড়ি। আর অভিষেক পরেছিলেন সাদা শেরওয়ানি, সত্যিকারের স্বর্ণের কাজ ছিল তাতে।

২০০৭ সালের সেই বিয়ের রাজকীয় আয়োজন আজও অনেকের স্মরণে রয়েছে। বলিউডের প্রভাবশালী বচ্চন পরিবারের বিয়ে বলে কথা!

Leave a Reply

Your email address will not be published.