প্রেম করায় মেয়ের মাথা কেটে থানার পথে বাবা!

রাস্তা দিয়ে স্বাভাবিক চলনে হেঁটে যাচ্ছেন এক ব্যক্তি। হাতে নিজের মেয়ের কাটা মাথা। বুধবার দুপুরে যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশের হারদোই জেলায় ঘটে যাওয়া এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যে। স্থানীয়রা জানান, এক যুবকের সঙ্গে

প্রেম করায় ক্ষিপ্ত হয়ে ১৭ বছরের কন্যার মাথা কেটে হাতে নিয়ে থানার দিকে যাচ্ছিলেন সরভেশ কুমার। লখনৌ থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে পান্দেতারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার। মাঝপথে দুই পুলিশকর্মী ওই ব্যক্তিকে আটকান।

তার পর ফোনে ভিডিও করতে শুরু করেন। নাম-ঠিকানা জিজ্ঞাসা করেন। কার মাথা হাতে ঝুলিয়ে তিনি যাচ্ছেন, সেটিও জিজ্ঞাসা করেন। এ সময় নির্বিকারে যাবতীয় প্রশ্নের উত্তর দেন সবজি বিক্রেতা সরভেশ। পুলিশের কাছে ওই ব্যক্তি স্বীকার

করেন, তিনিই মেয়ের মাথা কেটে হাতে ঝুলিয়ে থানায় যাচ্ছেন। তিনি জানান, ঘরের দরজা বন্ধ করে একটি ধারালো অস্ত্র দিয়ে মেয়ের মাথা কেটে ফেলেছেন তিনি। বাকি দেহাংশ ঘরের মধ্যেই পড়ে আছে। পুলিশ এই ভয়ানক বর্ণনা শোনার পর ওই কাটা

মাথা রাস্তায় নামিয়ে ওখানেই সরভেশকে আটক করে। পুলিশের হাতে ধরা দিতে তিনি অবশ্য কোনো প্রতিবাদ করেননি। সূত্রঃ যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published.