বিদ্যুৎ বিল ৮০ কোটি টাকা!

কখনও কখনও চোখের সামনে যা স্পষ্ট হয়ে ফুটে আছে তাকেও সত্যি বলে মেনে নেওয়া কঠিন হয়ে যায়। ঠিক তেমন অবস্থাই হয়েছিল অশীতিপর গণপত নায়েকের। কারণ, তার ইলেকট্রিক বিল এসেছে ৮০ কোটি টাকা! ইলেকট্রিক বিল নিয়ে অসন্তোষ অনেক সময়ই দেখা যায়। কিন্তু উনিশ-বিশের ব্যাপার হলেও চলে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে তেমনই হয়। কিন্তু ৮০ কোটি টাকা দেখে কার্যত চক্ষু চড়কগাছ হয়ে যায় গণপতের। বেড়ে যায় রক্তচাপ, পরে ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, মহারাষ্ট্রের নালা সোপারার বাসিন্দা এই বৃদ্ধ বেশ ধনাঢ্য। চাল কলের মালিক তিনি। কিন্তু এই অঙ্কের ইলেকট্রিক বিলের ধাক্কা সামলানো তার পক্ষেও সম্ভব হয়নি। ফলে সহজেই আতঙ্ক গ্রাস করে শরীরে। দ্রুত তাকে হাসপাতালে নিয়ে যান পরিবারের লোকজন। শুধু গণপত নন, বিল দেখে চমকে উঠেছিলেন তার নাতি নীরজও। তার কথায়, ‘আমরা সবাই তখন চাল কলেই ছিলাম। বিলটা দেখে প্রথমে মনে হয়েছিল এটা পুরো জেলার বিল। কিন্তু ভাল করে দেখে

বুঝতে পারি তা নয়, এটা আমাদেরই বিল। লকডাউনের সময় মিটার রিডিংয়ের সমস্যা থাকায় অনেকবারই বেশি টাকার বিল এসেছে। স্বাভাবিকভাবেই আমরা ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম ইলেকট্রিসিটি বোর্ড বোধহয় বকেয়া বিল পাঠিয়ে দিয়েছে।’ বকেয়া বিল হলেও

এত যে, তা কল্পনাতেও আনা সম্ভব নয়। এই প্রশ্নই ভাবাচ্ছিল সবাইকে। শেষ পর্যন্ত ইলেকট্রিসিটি বোর্ড জানিয়েছে, আসলে বিলেই ভুল রয়েছে। বোর্ডের এক কর্মী জানায়, ‘যে এজেন্সি বিল বানিয়েছে তারা ছয় অঙ্কের জায়গায় নয় অঙ্কের বিল

বানিয়েছে। পরে আমরা খতিয়ে দেখতে গিয়ে ভুলটা ধরতে পারি।’ অবশেষে নতুন বিল পাঠানো হয়েছে গণপতের পরিবারকে। যা দেখে স্বস্তি ফিরেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.