Breaking News

শাশুড়িকে সন্তুষ্ট করার জন্য হৃ’দ’রো’গে মৃ,.ত্যু.,র পরও ফাঁ,.সি.,তে ঝোলানো হলো নি.থ.র দে.,হ!

আগেই ফাঁ’,সি’,র আদেশ হয়েছিল। সেজন্য ফাঁ’,সি’,র’ দিনে লাইনে দাঁড় করানো হয়েছিল ইরানের জাহরা ই’সমাইলিকে। কিন্তু চোখের সামনে অ’ন্যদের ফাঁ,’সি দেখে নিজেকে সা’মলে রাখতে পারেননি তিনি। লাইনে দাঁ’ড়িয়ে থাকা অবস্থায়ই হৃ,’দরো’,গে আক্রান্ত হয়ে মৃ’,ত্যু হয় তার। কিন্তু এরপরও তাকে ছাড় দেওয়া হয়নি বলে জা’নিয়েছে ব্রিটিশ গণমাধ্যম দ্যা ই’নডিপেন’ডেন্ট ও দ্যা সান।

তাদের প্র’তিবেদনে বলা হয়, ই’রানের কু’খ্যা’ত রাজাই শাহর জে’লে সেই নি’থর দে’,হকেই ফাঁ’,সি,তে ঝোলানো হয়েছে। না’রীর শা’শুড়িকে সন্তুষ্ট করার জন্য এ অ’মান’বিক কাজ করেছিলেন কারা ক’র্মক’র্তারা। জাহরা ইসমাইলির বি’রুদ্ধে নিজের স্বা’মীকে হ.,ত্যা.,র অ,’ভি’যো’,গ ছিল। তার স্বামী একজন ইরানি গোয়েন্দা ক’র্মক’র্তা ছিলেন।

কিন্তু তিনি তার স্ত্রী এবং দুই স’ন্তানকে সবসময় অ’,ত্যা’চা’র করতেন। তাই ক্রো’ধের বশে জাহরা তার স্বা’মীকে হ.,ত্যা করেন। সেই অ’ভি’যো’গে’ই জাহরার ফাঁ.,সি হয়। জাহরার আ’ইনজীবী ওমিদ মোরাদির একটি টু’ইটারের বরাত দিয়ে ওই গণ’মাধ্য’ম বলছে, ফাঁ’,সি,’র আগে আরও ১৬ জন সা’জাপ্রাপ্তের পেছনে লাইনে দাঁড় করানো হয়েছিল দুই স’ন্তানের মা জা’হরাকে।

চো’খের সামনে একের পর একজনকে ফাঁ,.সি.,তে ঝুলতে দেখে সেই মা’নসিক ধা’ক্কা সামলাতে পারেননি জাহরা। লাইনে দাঁড়িয়েই হৃ’,দরো’,গে আ’ক্রা’ন্ত হয়ে মৃ.,ত্যু হয় তার। কিন্তু এরপরও তাকে ছাড় দেওয়া হয়নি। মো’রাদির দাবি, ডেথ সা’র্টিফি’কেটে জাহরার মৃ’,ত্যু’,র কারণ হিসেবে হৃ,’দরো’,গে আ’ক্রান্ত হওয়ার কথাই উল্লেখ করা হয়েছে।

অ’ত্যাচা’রী স্বা’মী’র হাত থেকে দুই মেয়েকে বাঁচানোর চেষ্টা করতে গিয়েই স্বা’মী’কে হ.,ত্যা করতে বাধ্য হন জাহরা। জাহরার আ’ইনজী’বীর অ’,ভি’যো’,গ, জাহরার শাশুড়ি ছেলে হ.,ত্যা.,র প্রতিশোধ নেওয়ার ঘোষণা করলে মৃ,.ত্যু,.র পরেও জাহরার দে’,হ’টি ফাঁ.,সি.,র মঞ্চে নিয়ে গিয়ে দড়িতে বেঁ’ধে ঝোলানো হয়।

যাতে ফাঁ,’সি’,তে ঝোলানোর পর তার শাশুড়ি লা’থি মেরে জা’হরার পায়ের নিচ থেকে চে’য়ারটি সরিয়ে দিতে পা’রেন। ইরানে শরিয়ত আ’ইনেই নি.,হ,.ত হওয়া ব্যক্তির প’রিবারের সদস্যদের প্রতিশোধ নেওয়ার সু’যোগ দেওয়া হয়। যাতে অ,’ভিযুক্ত,’কে সরাসরি শাস্তি দেওয়ার সুযোগ পান তারা।

আর ই’রানে একই দিনে ১৭ জনের ফাঁ.,সি.,র ঘটনাও খুব একটা অ’স্বাভাবিক নয়। কারণ চী’নের পর ইরানেই সবচেয়ে বেশি প্রা,’ণদণ্ডে’র শাস্তি দেওয়া হয়। মা,.দ.,ক পাচার, ম,.দ্যপা.,ন, স,.ম.,কা,.মি,.তা, বিয়ের আগেই যৌ.,ন স’,ম্পর্কে,র মতো অ’,ভিযো,গেও সেদেশে প্রা’,ণদ’,ণ্ডের শাস্তি দেওয়ার নজির রয়েছে।

Check Also

বিপদ সীমার ওপরে ৮ নদীর পানি, উত্তর-মধ্যাঞ্চলে বন্যার অবনতি

দেশের প্রধান নদ-নদীগুলোর পানি বাড়ছেই। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) দেশের আটটি নদীর পানি ১৯টি পয়েন্টে বিপৎসীমার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *