স্ক্যান্ডাল খুঁজতে না করলেন, দৃষ্টিভঙ্গিও বদলাতে বললেন মৌসুমী

নতুন শিল্পীদের নিয়ে দৃষ্টিভঙ্গি বদলানের আহ্বান জানালেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। বললেন, আপনাদের দৃষ্টিভঙ্গি বদলালে তারা আরও অনেক ভালো কাজ করতে পারবে। ১১ নভেম্বর ৩০টির মতো হলে মুক্তি পাচ্ছে এই তারকার ছবি ‘ভাঙন’। মুক্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গুলশানের একটি বাসার গ্যারেজে বসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন মৌসুমী।

এ সময় মৌসুমী বলেন, ‘নতুন শিল্পীরা ইন্ডাস্ট্রিতে এসে বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে অনেক ভালো কাজ করছে। তারা অনেক মেধাবী। আপনারা যদি শুধু তাদের স্ক্যান্ডাল খোঁজেন, তাহলে তারা এগিয়ে যেতে পারবে না। তাদের অনেক উৎসাহ দিতে হবে।’

নব্বই দশক পরবর্তী চলচ্চিত্রে দাপিয়ে অভিনয় করেছেন মৌসুমী। তবে এখন বড়পর্দায় আগের মতো সরব নন তিনি। অনেকটা ক্ষোভ ঝেড়ে মৌসুমী তার সময়ের উদাহরণ টেনে বলেন, আমরা কি ভুল করিনি? আমরাও অনেক ভুল করেছি। ভুল শুধরে নেয়া, সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা এবং কাউন্সিলিংয়ের মাধ্যমে আমাদের দাঁড় করিয়ে দেয়া- এই কাজগুলো কিন্তু সাংবাদিক ভাইয়েরাই করেছে।

‘কিন্তু এখন যারা কাজ করছেন, আপনারা সেটা করেন না। আপনার যা ইচ্ছে তাই নিউজ, ভিডিও করে উপস্থাপন করেন। তাতে আমাদের ছেলে মেয়েদের ভালো হওয়ার রাস্তা নেই। এছাড়া যারা নতুন সম্ভাবনাময় কাজ করছেন তারাও আগ্রহ হারাবে।’

‘ভাঙন’ প্রসঙ্গে মৌসুমী বলেন, এই সিনেমাটি গল্প মানবজীবনের গভীরকে স্পর্শ করবে। মানুষ কাঁদবে। কষ্ট পাবে। শিহরিত হবে, রোমাঞ্চিত হবে। মূলত কতিপয় ছিন্নমূল মানুষের সুখ-দুঃখের উপাখ্যানই হলো ভাঙন।ছবির গল্পে দেখা যাবে একটি রেলস্টেশনে জড়ো হওয়া কিছু প্রান্তিক ও ছিন্নমূল মানুষকে। যেখানে হকার, যৌনকর্মী, পকেটমার, বংশীবাদকসহ নানা ধরনের মানুষের জীবনে প্রতিচ্ছবি উঠে এসেছে।

এতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন মৌসুমী। তিনি জানান, তাদের জীবনযাত্রা, বেঁচে থাকা, প্রত্যাশার গল্প নিয়েই ‘ভাঙন’। পরিচালনা করেন মির্জা সাখাওয়াত হোসেন।২০২০-২১ অর্থবছরে সরকারি অনুদান এই ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন ফজলুর রহমান বাবু, বুলবুল আহমেদ জয়, মির্জা আফরিশ, প্রাণ রায়, সৃষ্টি মির্জা, রাশেদা চৌধুরী, হলিপুর রহমান কাদেরী, হিমেল রাজ, আনোয়ার সিরাজী, সঞ্জয় রাজ, মিশু চৌধুরী।

Leave a Comment