সন্তানের প্রত্যাশায় ওজন কমাতে হাঁটতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় মৃত্যু

রাজধানীর মগবাজার এলাকায় ট্রেনের ধাক্কায় নুশরাত জাহান সুমি (৩৮) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। নিহত ওই নারী দ্য বাংলাদেশ রেটিং এজেন্সির (বিডিআরএল) কর্মকর্তা ছিলেন।নিহত সুমির পরিবার বলছে,

সন্তান না হওয়ার কারণে চিকিৎসকের পরামর্শে শরীর পাতলা করার জন্য প্রতিদিনের মতো আজও সুমি রেললাইন দিয়ে হেঁটে বাসায় ফিরছিলেন। এ সময় ট্রেনের ধাক্কায় তিনি আহত হয়। পরে আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক রাত ৯টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

সোমবার (১৭ অক্টোবর) রাত সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।সহকর্মী আরিফুল হোসেন জানান, সুমি কারওয়ানবাজার বিডিআরএএলের সিনিয়র এনালাইসিস ছিলেন। সন্ধ্যায় অফিস শেষ করে হেঁটে বাসায় যাচ্ছিলেন। পরে লোক মারফত জানতে পারি সুমি মগবাজারের আমবাগান সংলগ্ন রেললাইনে ট্রেনের ধাক্কায় আহত হয়েছেন। পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে মগবাজার কমিউনিটি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে ঢামেক হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক রাত ৯টার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালে নিহতের ভাই জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, তাদের বাড়ি কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলায়। তারা খিলগাঁওয়ের গোড়ান আলী আহমেদ স্কুলের পাশে একটি বাসায় ভাড়া থাকেন। রাতে তার বোনের কলিগদের কাছ থেকে জানতে পারেন সুমি ট্রেন দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হাসপাতালে আছেন। পরে ঢামেক হাসপাতালে এসে সুমির মরদেহ দেখি। দুই ভাই আর দুই বোনের মধ্যে সুমি ছিলেন ছোট।

তিনি আরও জানান, সুমির কয়েক বছর আগে বিয়ে হয়েছে। স্বামী তানভীর হোসেন কুমিল্লার দেবীদ্বারে পল্লী সমবায় ব্যাংকে চাকরি করেন।তার বোনের সন্তান না হওয়ার কারণে তিনি চিকিৎসকদের পরামর্শে ওজন কমানের জন্য প্রতিদিন কারওয়ানবাজার অফিস থেকে রেললাইন দিয়ে হেঁটে বাসায় ফিরতেন। আজকেও সেখান দিয়ে বাসায় ফেরার পথে ট্রেনের ধাক্কায় তার মৃত্যু হয়।ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া বাংলানিউজকে জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

Leave a Comment