শিক্ষার্থীর মৃত্যু: ভাঙচুর-মারধরের ঘটনায় রামেক-রাবি পাল্টাপাল্টি মামলা

শিক্ষার্থী মো. গোলাম মোস্তাকিম শাহরিয়ারের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে ভাঙচুর ও মারধরের ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা করেছে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) কর্তৃপক্ষ। শনিবার গভীর রাতে মামলা দুটি নথিভুক্ত করে রাজপাড়া থানা পুলিশ।জানা যায়, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আনোয়ারুল ইসলাম বাদী হয়ে হাসপাতালে হামলা, ভাঙচুর, ডাক্তারদের মারধরের অভিযোগ এনে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অজ্ঞাত ৩০০ জন শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে গত বৃহস্পতিবার মামলার এজাহার জমা দেন।

অন্যদিকে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর আবদুস সালাম বাদী হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শতাধিক ডাক্তার, ইন্টার্ন ডাক্তার ও নার্স, ব্রাদার ও আনসার সদস্যকে আসামি করে শনিবার পাল্টা আরেকটি মামলার এজাহার জমা দেন। এজাহারে অভিযোগ করা হয়, রাবি শিক্ষার্থী শাহরিয়ারকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নেওয়ার পর তার চিকিৎসায় অবহেলা করা হয়। আইসিইউতে না পাঠিয়ে তাকে ৮ নম্বর ওয়ার্ডে পাঠানো হয়। বিনা চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়। প্রতিবাদ করায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের পিটিয়ে আহত করা হয়।

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, দু’পক্ষ পাল্টাপাল্টি অভিযোগ দিয়েছে। দুটি অভিযোগই মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে।এদিকে শনিবার দুপুর থেকে আবারও ৭২ ঘণ্টার কর্মবিরতি পালন করছেন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসকেরা। চিকিৎসকদের নিরাপদ কর্মস্থল ও হামলাকারীদের শাস্তি দাবিতে তারা এই কর্মবিরতি পালন করছেন। তবে তাদের এই কর্মবিরতির কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন রোগীরা।

প্রসঙ্গত, রাবির মার্কেটিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী এবং শহীদ হবিবুর রহমান হলের আবাসিক ছাত্র শাহরিয়ার গত ১৯ অক্টোবর হলের তৃতীয় তলার ছাদ থেকে নিচে পড়ে যান। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাম্বুলেন্সে করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হয়। চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শাহরিয়ারকে হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে প্রেরণ করে। পরে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

Leave a Comment