https://www.highperformancecpmgate.com/mpd7i4drgw?key=8c9246005c069d2f701e13c70787cd45
https://www.highperformancecpmgate.com/mpd7i4drgw?key=8c9246005c069d2f701e13c70787cd45

যাত্রী ছাউনি থেকে সেই প্রধান শিক্ষককে উদ্ধার

বগুড়ার নন্দীগ্রামে পরিবারের অবহেলার শিকার হয়ে কুন্দারহাট বাসস্ট্যান্ডের যাত্রী ছাউনিতে আশ্রয় নেওয়া অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুর রশিদকে (৮৮) উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিফা নুসরাতের নেতৃত্বে জনপ্রতিনিধিরা তাকে উদ্ধার করেন। পরে বিজরুল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

তিনি এক বছরের বেশি সময় সেখানে কষ্টে বসবাস করছিলেন। এ ঘটনায় বগুড়ার নন্দীগ্রামের ভাটগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালম আজাদ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন নাটোরের সিংড়া উপজেলার সাতপুকুরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। পরবর্তীতে নিজ উপজেলার বিজরুল উচ্চ বিদ্যালয় ও কুন্দারহাট ইনছান আলী দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ছিলেন। এরশাদ সরকারের সময় জাতীয় পার্টির নন্দীগ্রাম উপজেলার সভাপতি ছিলেন। নন্দীগ্রাম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গোলাপফুল প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী হন।

সংসারে তার স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়ে ছিল। ছেলে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মেয়েকে বিয়ে দেন। কিছুদিন পর স্ত্রীও মারা যান। শিক্ষকতা পেশা থেকে অবসর নেওয়ার পর আবদুর রশিদ জাতীয় পার্টির রাজনীতিতে অংশ নেন। অধিকাংশ জমিজমা বিক্রি করে দেন। বগুড়া শহরে দ্বিতীয় বিয়ে করেন। অবশিষ্ট দেড়বিঘা জমি দ্বিতীয় স্ত্রী, মেয়ে ও শাশুড়ি লিখে নেন। দু’বছর আগে তারা বাড়ির জায়গাসহ জমি বিক্রি করে শহরে চলে যান। তাদের সঙ্গে আবদুর রশিদ বগুড়া শহরে গেলেও কিছুদিন পর তাকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।

একা হয়ে পড়েন মানুষ গড়ার কারিগর আবদুর রশিদ। এক বছর আগে কুন্দারহাট বাসস্ট্যান্ডের যাত্রী ছাউনীতে আশ্রয় নেন। মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে তিনি ঠিকমত কথা বলতে পারেন না। সম্প্রতি বিষয়টি নজরে আসে গণমাধ্যমকর্মীদের।ভাটগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল কালম আজাদ বলেন, আবদুর রশিদ আগে বগুড়া শহরে দ্বিতীয় স্ত্রীর কাছে থাকতেন। স্ত্রী তাকে তাড়িয়ে দিলে ছাউনিতে আশ্রয় নিয়েছিলেন। খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে ইউএনও’র সহযোগিতায় তিনি, নন্দীগ্রাম পৌর চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাসহ অনেকে শিক্ষক আবদুর রশিদকে উদ্ধার করেন।

নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শিফা নুসরাত বলেন, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আবদুর রশিদকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চলছে। তাকে ঘর দেওয়া হলেও তিনি একা থাকতে পারবেন না। তাই স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ সবার সহযোগিতায় তার বাসস্থানসহ অন্যান্য সব ব্যবস্থা করা হবে।

Leave a Comment

https://www.highperformancecpmgate.com/mpd7i4drgw?key=8c9246005c069d2f701e13c70787cd45