মুনমুনের সিনেমার দর্শকদের ভিড়ে ভেঙ্গে পড়ল ইটের দেয়াল

দীর্ঘদিন পর বড় পর্দায় ফিরেই সাড়া ফেলে দিয়েছেন চিত্রনায়িকা মুনমুন। ‘রাগী’ সিনেমায় ‘ভিলেন’ চরিত্রে অভিনয় করেছেন মুনমুন। মুনমুনকে খল চরিত্রে দেখতে সিনেপ্রেমীরা ভিড় জমাচ্ছেন প্রেক্ষাগৃহে।

আর সিনেমা মুক্তির দ্বিতীয় দিনে ঘটল এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা। দর্শকদের ভিড়ে ভেঙ্গে গিয়েছে ইটের দেয়াল। রোববার সিনেমার প্রমোশনে ‘রাগী’ সিনেমার নায়ক আবীর, নায়িকা আঁচল ও মুনমুন রাজধানীর একটি সিনেমা হলে গেলে তাদের দেখতে ভিড় জমায় উৎসুকরা।

উপচেপড়া ভিড়ের চাপে সিনেমা হলের পাশে দোকানের ইট-সিমেন্টের দেয়াল ধসে পড়ে যায়।এ ঘটনায় হতাশ দোকানি বলেন, এমন তো আগে দেখিনি। নায়ক-নায়িকা দেখতে এসে সর্বনাশ করল আমার। দেয়ালে এমন মানুষের চাপ পড়ল যে ভেঙে সব শেষ। মুক্তির প্রথম দিনেই সিনেমাপাড়ায় ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ‘রাগী’। মুনমুনের খলচরিত্রে মজেছে সিনেপ্রেমীরা। বেশিরভাগ দর্শক জানিয়েছেন, এক সময়ের আলোচিত নায়িকা মুনমুনের খলচরিত্র দেখতে কৌতুহলী হয়ে আসছেন অনেকে। মুনমুন তাদের হৃদয় জয় করেছে।

ছবি মুক্তির দিনে শুক্রবার রাজধানীর মধুমিতা, ইংলিশ রোডের চিত্রামহল ও জিঞ্জিরার নিউ গুলশান হল পরিদর্শনে দর্শকদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ করা যায়। এর মধ্যে কয়েকটি ছিল দর্শক পরিপূর্ণ। ফলে ছবি পরিদর্শক টিমও হলে বসার সিট পাননি।সিনেমার নায়ক আবীর চৌধুরী বলেন, ‘দর্শক যদি আমাদের সিনেমা দেখে এবং আমরা যদি আমাদের টাকা উঠিয়ে আনতে পারি তাহলে এ দেশের দর্শককে দক্ষিণ ভারতের সিনেমার দিকে তাকাতে হবে না। সে চাহিদা আমরা পূরণ করতে পারব। আশা করি ছবিটি সবাই হলে এসে দেখবেন।’

নায়িকা আঁচল বলেন, ‘আমাদের দেশে নায়ক বলতে চকোলেট বয়ের মতো হবে, এমন একটি ধারণা প্রতিষ্ঠিত আছে। আবীর চৌধুরী সেটিকে ভুল প্রমাণ করেছেন। ‘রাগী’ সিনেমাটি দেখলে বুঝতে পারবেন। আমি দর্শকদের আহ্বান করব প্রেক্ষাগৃহে এসে সিনেমাটি দেখতে’।মিজানুর রহমান মিজান পরিচালিত অ্যাকশন ধারার চলচ্চিত্র ‘রাগী’। শুক্রবার থেকে ছবিটি সারা দেশের ২৮টি প্রেক্ষাগৃহে একযোগে মুক্তি পেয়েছে।

ছবিটির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- আবীর চৌধুরী, আঁচল আঁখি, মুনমুন, মৌমিতা মৌ, ববি, কাজী হায়াৎ, জিয়া তালুকদার, মারুফ আকিব, শতাব্দী ওয়াদুদ, সনি রহমান প্রমুখ। জাকিরা খাতুন জয়া প্রযোজিত এ ছবিটিতে সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আহাম্মেদ হুমায়ুন। এতে গান করেছেন ইমরান, কণা, শাওন গানওয়ালা ও কর্নিয়া। গানগুলো কোরিওগ্রাফার হিসেবে ছিলেন মাইকেল বাবু রতন।

Leave a Comment