দিনে পুলিশ, রাতে গার্মেন্টস শ্রমিক

আশুলিয়ায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন নাসির। নাইট ডিউটি ছিল তার অফিস সময়। দিনে কোনও কাজ না থাকায় হাতে ওয়াকিটকি নিয়ে পুলিশ পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন লোকজনকে তল্লাশির নামে হাতিয়ে নিতেন মানিব্যাগ এবং সঙ্গে থাকা যাবতীয় জিনিসপত্র।

এমন প্রতারণার অভিযোগে নাসির নামে এই প্রতারককে গ্রেফতার করেছে উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশ।বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) এই প্রতারককে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ মহসিন।

তিনি বলেন, ‘আজ বিকালে মাইনুল ইসলাম নামে একজন ডেন্টাল টেকনোলজিস্ট এটিএম বুথে টাকা তুলতে গেলে তার গতিরোধ করেন নাসির। প্রথমে মাইনুলের পরিচয় জানতে চান। এরপর তার ব্যাগ তল্লাশি শুরু করেন। ওই সময় টহল পুলিশের একটি দল সেখানে উপস্থিত হলে মাইনুল তাদের সব খুলে বলেন। এরপর টহল পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নাসির এক পর্যায়ে নিজেকে ভুয়া পুলিশ বলে স্বীকার করেন। তিনি এর আগে একই ধরনের অপরাধে মিরপুরেও গ্রেফতার হয়েছিলেন।’

ওসি মোহাম্মদ মহসিন জানান, ‘আজ বিকালে উত্তরা ৭ নম্বর সেক্টরের মাস্কাট প্লাজার সামনে থেকে প্রতারক নাসির ফকিরকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। কিন্তু তিনি পুলিশ পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করে আসছিলেন। পকেটে ইউনিফর্ম পরা ছবি এবং কোমড়ে ওয়াকিটকি নিয়ে তিনি নিজেকে পুলিশের সাব ইন্সপেক্টর হিসেবে পরিচয় দেন।গ্রেফতার নাসির গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানি থানার আরোয়াকান্দি গ্রামের জব্বার চুন্নু ফকিরের ছেলে।

Leave a Comment