ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যায় ৪ জনের মৃত্যুদণ্ড

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা মামলার রায়ে চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই মামলায় এক নারীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও আরেক নারীকে খালাস দেওয়া হয়েছে।মঙ্গলবার সকালে নারায়ণগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক নাজমুল হক শ্যামল এ রায় দেন।

নিহত আফসানা আক্তার নিপার (১১) বাবার নাম আক্তার হোসেন। সে থানার চর রাজাপুর গ্রামের বক্তাবলী এলাকায় বসবাস করত।মৃত্যুদণ্ডে দণ্ডিতরা হলেন— রবিউল, শুক্কুর, কামরুল হাসান, আলী আকবর। যাবজ্জীবনে দণ্ডিত হচ্ছেন— ডলি বেগম। খালাস পেয়েছেন নাসরিন বেগম। তাদের মধ্যে রবিউল ও ডলি বেগম জামিনে গিয়ে পলাতক রয়েছেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী মো. সাইদুল ইসলাম সুমন বলেন, ২০০৫ সালের ২ মে ফতুল্লার চররাজাপুর গ্রামের বাড়ি থেকে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী তার ফুপুর বাড়ি লক্ষ্মীনগর গ্রামে দাওয়াত খেতে যায়। তার পর দিন থেকে ছাত্রী নিখোঁজ। ৪ মে লক্ষ্মীনগর গ্রামের একটি ধইঞ্চা ক্ষেত থেকে ছাত্রীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন।

তিনি আরও বলেন, পুলিশ প্রথমে ডলি বেগমকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। তখন ডলি পুলিশকে জানায় ছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে। একই সঙ্গে হত্যাকারীদের নাম-পরিচয় জানায়। এ ঘটনায় আদালত ন্যায়বিচার করেছেন।