চেনাই যাচ্ছে না চিত্রনায়িকা শাবনূরকে

শাবনূর, বাংলা চলচ্চিত্রের অন্যতম সফল চিত্রনায়িকা। ১৯৯৩ সালে অভিষেকের পর অভিনয় করেছেন দেড় শতাধিকের বেশি সিনেমায়। সালমান শাহ, রিয়াজ, শাকিল খান, ফেরদৌস, মান্না ও শাকিব খানের সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে ব্যবসাসফল সিনেমা উপহার দিয়েছেন অনেক। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, বাচসাস পুরস্কার এবং দশবার মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার পেয়েছেন এ অভিনেত্রী।

জনপ্রিয়তার তুঙ্গে থাকা এ চিত্রনায়িকা ২০১২ সালের ২৮ ডিসেম্বর বিয়ে করেন ব্যবসায়ী অনিক মাহমুদকে। বিয়ের পর অস্ট্রেলিয়ায় বসবাস শুরু করেন এবং নাগরিকত্ব লাভ করেন।২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর প্রথম পুত্রসন্তানের মা হন শাবনূর। অনিক-শাবনূর দম্পতির প্রথম সন্তানের নাম আইজান নিহান। শাবনূরের সুখের সংসারে হঠাৎ নেমে এল অশান্তি। স্বামীর সঙ্গে ‘বনিবনা হচ্ছে না’-এমন কারণে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নেন চিত্রনায়িকা। ২০২০ সালের ২৬ জানুয়ারি স্বামীকে তালাক দিয়েছেন তিনি। ভেঙে যায় শাবনূর-অনিকের আট বছরের সংসার।

বিচ্ছেদের পর এখন সন্তানকে নিয়েই প্রবাস জীবন কাটছে নায়িকার। এর আগে মাঝেমধ্যে দেশে ফিরলেও করোনার কারণে প্রায় আড়াই বছর হলো দেশে আসেননি। তবে শিগগিরই দেশের মাটিতে পা রাখতে চলেছেন তিনি।এদিকে শাবনূর এখন নিয়মিত জিমে সময় দিচ্ছেন। নানা রকম কসরত করে মেদ ঝরাচ্ছেন। ফিটনেস ঠিক করে আবারও অভিনয়ে ফেরার ইচ্ছে রয়েছে তার। সেজন্য চেষ্টার কমতি রাখছেন না।

সম্প্রতি সাক্ষাৎকার দিয়েছেন গণমাধ্যমে। তিনি জানান, অভিনয়ে ফিরতে আরও কিছুদিন সময় চাই। ফেরার জন্য চেষ্টা চলছে। ফিরতে হলে আমাকে আগে ফিট হতে হবে। সে চেষ্টাই করছি।শাবনূর বলেন, ওজন কমানো খুব কঠিন একটা কাজ। হঠাৎ করে ওজন কমানো সম্ভব নয়। ফিট হওয়ার জন্য আরও সময় প্রয়োজন। চলতি বছরই আমার নিয়মিতভাবে অভিনয় শুরু করার ইচ্ছা আছে। আবার ছবিতে অভিনয় করব। কারণ আমরা ব্যক্তিগতভাবে সবাই খুবই দুঃখী। আমি চাই মানুষদের বিনোদন দিতে। আমি এখনো কাজ করতে চাই। আমাকে নিয়ে যদি তেমন গল্পের ছবি বানাতে চান, আমার মতো করে গল্প বলতে চান, তাহলে অবশ্যই আমি সেসব ছবিতে অভিনয় করব।

চলচ্চিত্র নির্মাণে আসবেন? তিনি বলেন, বর্তমানে চলচ্চিত্রের সময়টা আবারও ভালোর দিকে যাচ্ছে। গত দুই ঈদে বেশকটি ছবি ভালো ব্যবসা করেছে বলে শুনেছি। আমার বিশ্বাস শিল্পের প্রতি আন্তরিক ও চলচ্চিত্রের সবাই ঐক্যবদ্ধ হলে ছবির ব্যবসা আবারও ঘুরবে। চলচ্চিত্র আরও ভালো অবস্থানে যাবে। তখন অনেকেই আবার চলচ্চিত্র নির্মাণে ফিরবে। ছবি পরিচালনা করার ইচ্ছার কথা আগেই জানিয়েছিলাম। তাও করব। শুধু সব গুছিয়ে নিতে একটু সময় দরকার। আর কিছু নয়।

Leave a Comment