কলেজের মাঠে ফিল্মি কায়দায় প্রেম নিবেদন!

কলেজ প্রাঙ্গণে বসে একাধিক ছাত্রছাত্রী। তরুণীর সামনে হাঁটু গেড়ে বসে ফুলের তোড়া দিয়ে ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন করছেন যুবক। হাসিমুখে ফুল গ্রহণ করলেন তরুণী। প্রেমিকের গালে দিলেন চুম্বনও। কেউ হাততালি দিয়ে আবার কেউবা চিৎকার করে তাদের অভিনন্দন জানাচ্ছেন। এই ভিডিও সোশ্যাল

মিডিয়ায় পোস্ট করা হয়। ফিল্মি স্টাইলে নদিয়ার চাকদহ কলেজের প্রাঙ্গণে দাঁড়িয়ে ছাত্রছাত্রীর প্রেম নিবেদনের ভিডিও ভাইরাল। ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি SangbadPratidin.in। বিষয়টি নজরে আসার পরই কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে কলেজ কর্তৃপক্ষপ্রেম নিবেদনের ভিডিওতে দেখতে পাওয়া ছাত্রছাত্রী চাকদহের বাসিন্দা। যে ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছে তার

বাড়িও চাকদহেই। নোটিস জারি করে কলেজ কর্তৃপক্ষ সমস্ত ছাত্রছাত্রীকে জানিয়ে দিয়েছে, “এই ভাইরাল ভিডিওর দ্বারা কলেজের ভাবমূর্তি এবং সম্মান ক্ষুন্ন করা হয়েছে। যে সকল ছাত্রছাত্রী এই ধরনের কাজে সক্রিয় ছিল, তাদের সকলকে আগামী নোটিস পর্যন্ত কলেজে ঢুকতে নিষেধ করা হয়েছে। আগামী দিনে কলেজ প্রাঙ্গণে এই ধরনের কাজে

কেউ যুক্ত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।”কলেজের অধ্যক্ষ স্বাগতা দাস মোহন্ত জানিয়েছেন, “আমাদের কলেজে ডিসিপ্লিন অ্যান্ড কোড অফ কন্ডাক্ট কমিটি রয়েছে। ওই ভিডিওটি দেখার পর ১৯ নভেম্বরেই ওই কমিটির বৈঠক ডাকা হয়েছিল। ওই কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ছাত্রছাত্রী এবং তাদের অভিভাবকদের ডাকা হয়। ওই ভিডিও করার কাজে যারা যুক্ত থাকা মোট তিনজন আমার কাছে এসেছিল। আমি তাদের অভিভাবকদের কলেজে ডেকেছি। তারা এই ধরনের

কাজ করবে না বলে কথা দিয়েছে। এরপর তাদের অভিভাবকদের সঙ্গে কথা বলে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আসলে কলেজ বা কোনও স্কুল প্রাঙ্গণ যে পার্ক নয় তা অভিযুক্ত ছাত্রছাত্রীদের বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য এই পদক্ষেপ কলেজ কর্তৃপক্ষের।”কলেজ কর্তৃপক্ষের জারি করা সেই নোটিসের জেরে অন্যান্য ছাত্রছাত্রীরা অনেকটাই সতর্ক। তারা কেউই এ বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের চাকদহ কলেজ ইউনিটের সভাপতি সুরাজ মণ্ডল এ বিষয়ে কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

Leave a Comment